ফুটবলবিশ্বে তুলকালাম

ফুটবলবিশ্বে তুলকালাম

ইউরোপের শীর্ষ ১২টি ক্লাব নিয়ে আত্মপ্রকাশ করেছে ইউরোপিয়ান ফুটবল লিগ। গত রবিবার উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের আদলে এই ফুটবল লিগের ঘোষণা করা হয়। সবাই এটাকে ‘বিদ্রোহী’ লিগ হিসেবে ধরে নিয়েছে। প্রাথমিকভাবে ৬ বিলিয়ন ডলার নিয়ে এই লিগ চালু হতে যাচ্ছে। ইউরোপের সর্বোচ্চ ফুটবল গভর্নিং বডি উয়েফা ও ফিফা কড়াভাবে জানিয়ে দিয়েছে- এই লিগে খেলতে গেলে সেই ক্লাব ও খেলোয়াড়দের নিষিদ্ধ করা হবে। সেক্ষেত্রে এই ক্লাবের ফুটবলাররা বিশ্ব ফুটবলে অন্য আসর এমনকি বিশ্বকাপ ফুটবলেও খেলতে পারবেন না। লিওনেল মেসি ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো বার্সেলোনা ও জুভেন্টাসে খেলছেন। এমন হলে ২০২২ কাতার বিশ্বকাপে

যে তারা খেলতে পারছেন না- এটা নিশ্চিত এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত। এই আসরের বাজেট ধরা হয়েছে প্রাথমিকভাবে ৬ বিলিয়ন ডলার। যেটি ২০ বিলিয়নে যাবে। অর্থায়ন করছে আমেরিকান ব্যাংক জেপি মরগ্যান।

 

এই লিগে জার্মানি ও ফ্রান্সের কোনো ক্লাব খেলছে না। রিয়াল মাদ্রিদের প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেনটিনো পেরেজ এই লিগের প্রধান চেয়ারম্যান হয়েছেন। আর সদর দপ্তর করা হয়েছে স্পেনের মাদ্রিদে অবস্থিত সান্তিয়াগো বার্নাব্যুকে। রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা, অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ (স্পেন), এসি মিলান, ইন্টারমিলান, জুভেন্টাস (ইতালি), ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ম্যানচেস্টার সিটি, চেলসি, লিভারপুল, টটেনহ্যাম, আর্সেনাল (ইংল্যান্ড) ইতোমধ্যে যোগ দিয়েছে। আরও তিনটি ক্লাব প্রতিষ্ঠকালীন ক্লাব হিসেবে আসবে। মোট ২০টি দল এই প্রতিযোগিতায় খেলবে।

আগামী আগস্টে শুরু হতে যাচ্ছে এ আসর। করোনা মহামারী কমে এলেই প্রক্রিয়া শুরু হবে। সপ্তাহের মাঝে মানে মঙ্গলবার, বুধবার ও বৃহস্পতিবার খেলাগুলো হবে। এই ২০টি ক্লাবকে দুটি ভাগে ভাগ করা হবে। সেরা ৬টি ক্লাব সরাসরি কোয়ার্টার ফাইনালে যাবে। ৪র্থ ও পঞ্চমস্থান অর্জনকারী দল প্লে অফ খেলে শেষ আটে আসবে। সেমিফাইনালও দুটি লেগে হবে। হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ের ভিত্তিতে খেলা হবে। ফাইনাল শুধু একটি লেগে হবে।

এই আসর শুরু হওয়ার খবরে চটেছেন অনেকে। ফিফা, উয়েফা, স্থানীয় ফুটবল লিগ কমিটি রাতে বসেছে বিশেষ বৈঠকে। তারা কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে। উয়েফা নিজেদের ওয়েবসাইটে রবিবার এক বিবৃতিতে এসব ক্লাবকে নিষিদ্ধ করার হুমকি দেওয়ার পাশাপাশি তাদের বিরুদ্ধে সব ধরনের আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে সতর্ক করে দেয়, ‘আমরা আবার বলতে চাই- আমরা ফিফাসহ এবং আমাদের সব সহযোগী সংগঠন ঐক্যবদ্ধ থেকে এই বিধ্বংসী প্রকল্প বন্ধ করতে কাজ করব।’

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ ও ইউরোপা লিগ দীর্ঘদিন ধরে হয়ে আসছিল। এই সুপার লিগ গঠন যারা করছে তাদের দাবি- সেরা ১২টি ক্লাবের সমর্থক বিশ্বে বেশি। সেজন্য তারা নিয়মিত বড় ক্লাবের লড়াই আয়োজন করতে যাচ্ছে। যে সময়ে এই ফুটবল লিগ হবে, তখন চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচ থাকে। ধরেই নেওয়া যায়, তারা আর চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলতে রাজি নয়।

এদিকে গুঞ্জন উঠেছে- চলমান চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে তিন দল চেলসি, ম্যানচেস্টার সিটি ও রিয়াল মাদ্রিদকে নিষিদ্ধ করে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইকে চ্যাম্পিয়ন করা হবে। এই চারটি ক্লাব সেমিফাইনালে উঠেছে এই মৌসুমে। পুরো ফুটবল বিশ্ব এখন টলে উঠেছে। ২০১৮ সালে প্রথম এই লিগের কথা শোনা গিয়েছিল। পেরেজ জানান, এই পরিকল্পনা তিনি ২০০৯ থেকে করছেন। রাতের বৈঠকে জানা যাবে, উয়েফা ও ফিফা সিদ্ধান্ত নেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

You may use these HTML tags and attributes:

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

Related Posts

বিশ্বে করোনা ভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
১৫৮,০৮৯,৯৩৫
সুস্থ
৯৪,৩৪০,০০৯
মৃত্যু
৩,২৯০,৪৬৬

সর্বশেষ