কেন খাবেন কাঁচা কলা?

আঁশযুক্ত সবজি হওয়ায় কাঁচা কলা খুব সহজে হজমযোগ্য। কাঁচা কলা পেটের ভিতরে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া দূর করে দেয়। তবে অতিরিক্ত পেট ফোলা সমস্যা থাকলে কাঁচা কলা খাওয়া থেকে বিরত থাকা উচিত।

সবজি হিসেবে কাঁচা কলার বিকল্প কিছু হয় না। এতে কার্বোহাইড্রেড, ফাইবার, পটাশিয়াম, ভিটামিন-বি৬, ভিটামিন-সি এবং আরও নানা উপকারী উপাদান রয়েছে। এছাড়াও কাঁচা কলায় থাকা ভিটামিন-সি রক্তে হিমোগ্লোবিন তৈরি করে, যা রক্তে অক্সিজেন পরিবহন করে। ভিটামিন বি-৪ রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে থাকে।

ওজন কমায় : কাঁচাকলা ফাইবার সমৃদ্ধ হওয়ায় দীর্ঘ সময় পেট ভরিয়ে রাখে। এতে করে ক্যালরিবহুল অন্যান্য খাবার থেকে দীর্ঘ সময় বিরত থাকা যায়। যারা ওজন কমাতে চান তারা খাদ্য তালিকায় কাঁচা কলা রাখুন। এছাড়াও আঁশযুক্ত হওয়ায় মেদ বার্ন করতেও কার্যকরী ভূমিকা রাখে কাঁচা কলা।

শর্করা নিয়ন্ত্রণ করে : কাঁচা কলা সাধারণত আঁশযুক্ত, তাই রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে। এতে থাকা ভিটামিন-বি৬ গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণ করে এবং টাইপ-টু ডায়াবেটিস ঠেকাতেও সহায়তা করে।

হজম শক্তি বৃদ্ধি : কাঁচা কলা খাওয়ার ফলে পেটের ভেতরে থাকা খারাপ ব্যাকটেরিয়া দূর করে দেয়। আঁশযুক্ত সবজি হওয়ায় খুব সহজেই হজম হয় এটি। এনজাইম সমৃদ্ধ হওয়ায় ডায়রিয়া এবং পেটের বিভিন্ন ইনফেকশন দূর করে থাকে।

হৃদরোগের ঝুঁকি কমায় : কাঁচা কলায় প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম রয়েছে। হৃদরোগে অনেক উপকারী এই পটাশিয়াম উপাদান। নিয়মিত কাঁচা কলা খাওয়ার ফলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে যায়।

কোলন ক্যানসার প্রতিরোধ : কাঁচা কলা খাওয়ার ফলে ক্ষতিকর সকল ব্যাকটেরিয়া, জীবাণু এবং ইনফেকশনকে দূর করে কোলনকে ভালো রাখে। দীর্ঘমেয়াদী কোলন সংক্রান্ত রোগ প্রতিরোধেও সহায়ক ভূমিকা রাখে কাঁচা কলা।

হাড় মজবুত : নিয়মিত কাঁচা কলা খাওয়ার ফলে শরীরের হাড় মজবুত এবং হাড় ক্ষয় হ্রাস পায়। এ কলায় ম্যাগনেসিয়াম ও ফসফরাস থাকায় হাড়ের জন্য অনেক ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই প্রতিদিনের খাবার তালিকায় কাঁচা কলা রাখতে পারেন।

ফুসফুসের যে সংকেতে বাড়তে পারে বিপদ, জানাল আমেরিকান ক্যান্সার সোসাইটি

বুকে হাল্কা ব্যথা। কিংবা মাঝেমধ্যেই ঠান্ডা লেগে যাওয়া। এ তো হয়েই থাকে। ফুসফুসের ক্যানসার কিংবা গুরুতর ব্রঙ্কাইটিস যেন সকলের হতে পারে না। ধরেই নেওয়া হয়, সেসব অসুখ শুধু বয়স্কদেরই হয়।

কিন্তু অসুখের কোনও বয়স নেই। ফলে সতর্ক হতে হবে যে কোনও সংকেত পেলেই। যেসব অস্বস্তিকে সাধারণত অবহেলাই করা হয়ে থাকে, সেসব বিষয়েও হতে হবে সাবধান। ধূমপানের অভ্যাস না থাকলেও বুকে ব্যথা হলে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। সব বয়সের নারী-পুরুষের প্রতিই এমন বার্তা দিয়েছে আমেরিকান ক্যান্সার সোসাইটি।

কোন কোন সংকেত পেলে বেশি সাবধান হতে হবে?

১. কথায় কথায় সর্দি-কাশি হচ্ছে? এমন কিন্তু স্বাভাবিক নয়। যদি কিছু দিন অন্তর ঠান্ডা লেগে থাকে, তবে বুঝতে হবে শরীরের ভিতরে কোনও সমস্যা আছে। অনেকের আবার কাশি হলে কমতেই চায় না। এমন প্রবণতা দেখলে সাবধান হওয়া জরুরি।

২. ঘুম থেকে উঠলেও কাঁধ-পিঠে ব্যথা হয়? তাহলে বুঝতে হবে, এ সাধারণ ক্লান্তি নয়। অনেক সময়েই শরীরের এক অংশে সমস্যা হলে একেবারে অন্য কোনও অঙ্গে অসুবিধা দেখা দেয়। এই ধরনের ব্যথাকে চিকিৎসা পরিভাষায় বলে ‘রেফার্ড পেন’।

৩. শ্বাস নিতে গেলেই খুব হচ্ছে বলে মনে হয়? এই সমস্যাও অবহেলা করার মতো নয়। বুঝতে হবে ফুসফুস জানান দিচ্ছে, ভিতরে কোনও সমস্যা আছে। ফুসফুসের আশপাশে প্রদাহ সৃষ্টি হলে এমন হতে পারে।

৪. সর্বক্ষণ ক্লান্ত লাগলে যেমন উদ্বেগ, অবসাদের মতো সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা থাকে, তেমন অন্য অসুখও হতে পারে। ফুসফুস ঠিকভাবে কাজ না করলে শরীরে পর্যাপ্ত অক্সিজেন ঢোকে না। তা থেকেই ক্লান্তি আসতে পারে।

৫. গলার আওয়াজ অন্য রকম লাগছে কি? সর্দি-কাশি হলে এমন সমস্যা ঘটেই থাকে। কিন্তু দিনের পর দিন যদি এমনই চলে, তবে সমস্যা গুরুতরও হতে পারে। সেক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া জরুরি।

৬. বুকে কফ জমার প্রবণতা বেড়ে গিয়ে থাকলেও চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে। অল্প সর্দি-কাশি হওয়া স্বাভাবিক। কিন্তু একবার বুকে কফ জমলে যদি তা আর না যেতে চায়, তাহলে ফুসফুসের হাল নিয়ে কিছুটা সতর্ক হওয়া দরকার। সূত্র: আমেরিকান ক্যান্সার সোসাইটি

রাজধানীর গাবতলীতে ট্রলারডুবি, ৭ জন নিখোঁজ

রাজধানীর গাবতলীতে তুরাগ নদীতে ট্রলারডুবিতে ৭ জন নিখোঁজ হয়েছেন। আজ শনিবার সকালে ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটে।

নিখোঁজ ব্যক্তিদের উদ্ধারে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের ৩টি ইউনিট।

শুটিং শুরু হচ্ছে ‘হামি ২’র, থাকছে চমক

ভুটু ও চিনি নামের দুই শিশুর বন্ধুত্ব নিয়ে নির্মাণ করা হয়েছিল ‘হামি’। ২০০৮ সালে মুক্তি পাওয়া ছবিটি ভীষণ জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। এবার ছবিটির সিক্যুয়েলের কাজ শুরু হচ্ছে। এরইমধ্যে ছবির গানও রেকর্ড করা হয়েছে।

নন্দিতা রায় ও শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় পরিচালিত হামি ছবিটির কাহিনী ছোট-বড় সকলের হৃদয় ছুঁয়েছিল। পাশাপাশি ব্যবসাসফলও হয়েছিল। রাতারাতি তারকা হয়ে উঠেছিল ছবির প্রধান দুই শিশুশিল্পী ব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় ও তিয়াসা পাল।

সম্প্রতি পরিচালক জুটির প্রযোজনা সংস্থা ‘উইন্ডোজ’ প্রোডাকশনের ফেসবুক পেজে ঘোষণা করা হয়েছে ‘হামি ২’ আসছে। চলতি বছরের ডিসেম্বরে ‘হামি ২’ এর শ্যুটিং শুরু হচ্ছে।

শিবপ্রসাদ বলেছেন, ‘এটুকু বলতে পারি, হামি ২-তে রয়েছে প্রচুর চমক। আগের ছবির সব অভিনেতারাই থাকবেন। বেশ এক ঝাঁক নতুন মুখও দেখা যাবে’।

‘হামি ২’-এর সংগীত পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই ছবির তিনটি গানও রেকর্ড করা হয়ে গেছে।

জামিন আবেদনে কী বললেন শাহরুখপুত্র আরিয়ান?

মাদক মামলায় গ্রেফতার বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খানের জামিন আবেদন নাকচ করে দিয়েছেন ভারতের মুম্বাইয়ের ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

শুক্রবার এ বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

হিন্দুস্তান টাইমসে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জামিন আবেদনে নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন শাহরুখপুত্র। আইনজীবীর মাধ্যমে জামিন আবেদনে লেখেন, “আমি ২৩ বছর বয়সী একটা ছেলে, আমার কোনও ক্রিমিন্যাল রেকর্ড নেই। আমাকে সেখানে (ক্রুজ পার্টি) আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। ড্রাগস নিতে বলা হলে আমি অস্বীকার করেছিলাম। আমার বিরুদ্ধে আর কোনও অভিযোগ নেই। আমার ফোনের সমস্ত ডেটা সংগ্রহ করে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।”

আরিয়ান আরও লেখেন, “আমার বাবা-মা রয়েছে, পরিবার এখানে (ভারতে) থাকে। আমি ভালো ঘরের ছেলে। আমার ভারতীয় পাসপোর্ট রয়েছে, আমি কোথাও পালিয়ে যাব না। এমনকি ক্ষমতাশালী বাবার ছেলে বলে তথ্য-প্রমাণের লোপাটের কোনও চেষ্টাও করব না। আমার কাছ থেকে কোনও মাদক উদ্ধার হয়নি এবং যে হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের কথা বলা হচ্ছে সেগুলো যখন আমি বিদেশে ছিলাম সেই সময়ের।”

গত ২ অক্টোবর রাতে মুম্বাই থেকে ভারতের পর্যটন নগরী গোয়ার উদ্দেশে রওনা হওয়া একটি প্রমোদতরী থেকে আরিয়ানসহ আট জনকে আটক করে এনসিবি। পরবর্তী সময়ে জেরার পর তাদের গ্রেফতার করা হয়। এনডিপিএস আইনের ৮সি, ২০বি, ২৭ এবং ৩৫ নম্বর ধারায় তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

এরপর ৪ অক্টোবর আরিয়ানসহ অন্যদের আদালতে তোলা হয়। পরে ৭ অক্টোবর পর্যন্ত তাদের এনসিবির হেফাজেত রাখার নির্দেশ দেন আদালত। ৭ অক্টোবর গ্রেফতারকৃতদের মেট্রোপলিটন আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় আরিয়ানের আইনজীবী জামিন আবেদন করলে তা নাকচ করে ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত বিচারকি হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন এবং নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) রিমান্ড বাড়ানোর আবেদন করলে তাও নাকচ করেন আদালত। এ রায়ের পরপরই আরিয়ানের আইনজীবী সতীশ মানেশিন্দে অন্তবর্তীকালীন ও পূর্ণ জামিন আবেদন করেছেন। শুক্রবার সেটিও নাচক হয়েছে।

বর্তমানে মুম্বাইয়ের আর্থার রোড কারাগারে রয়েছেন আরিয়ানসহ গ্রেফতারকৃত অন্যরা। কারাগারের কোয়ারেন্টাইন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে তাদের।

ভিডিওতে দেখে নিন ওমানের বিপক্ষে সোহানের দুর্দান্ত সেই ৫ ছক্কা

ওমান ‘এ’ দলের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে ব্যাট হাতে দারুণ করেছেন বাংলাদেশ একাদশের ব্যাটসম্যানরা। দুই ওপেনার লিটন দাস ও মোহাম্মদ নাঈমের দারুণ শুরুর পর শেষে নুরুল হাসান সোহানের ছক্কার ঝড়ে ২০৭ রানে থামে বাংলাদেশ।

শুক্রবার ওমানের আল আমেরাত ক্রিকেট গ্রাউন্ডে খেলাটি শুরু হয় রাত সাড়ে ৮টায়। বাংলাদেশ আগে ব্যাটিং করে ৪ উইকেট হারিয়ে ২০৭ রান তোলে। মাত্র ১৫ বলে ৪৯ রান নিয়ে সোহান ও ১০ বলে ১৯ রান নিয়ে শামীম পাটোয়ারি অপরাজিত ছিলেন।

শেষ ১২ বলের মধ্যে সোহান-শামীম হাঁকান ৭টি ছয়। তার মধ্যে সোহান একাই হাঁকান ৫টি। ১৯তম ওভারের প্রথম ৩ বলে ৩টি ছয়ের পর ইনিংসের শেষ ২ বলেও উড়িয়ে বাউন্ডারি পার করেন। সব মিলিয়ে বাংলাদেশ ইনিংসে ছয়ের মার ১৩টি। শেষ ৫ ওভারে বাংলাদেশ তোলে ৮১ রান।

১৭তম ওভারে বাংলাদেশের রান যখন ৪ উইকেটে ১৪০, তখন ক্রিজে আসেন সোহান। আমিরের ওভারের তৃতীয় ডেলিভারিতে ছক্কা হাঁকান তিনি। বাউন্ডারিতে ক্যাচে পরিণত হতে পারতেন, কিন্তু দূরহ ক্যাচটি লুফে নিতে পারলেন না ফিল্ডার। পরের বলটি বোলারের উপর দিয়ে বিশাল এক ছক্কা হাঁকান। ওভারের শেষ বলটিও উড়িয়ে পাঠান বাউন্ডারির বাইরে।

১৯তম ওভারের প্রথম ও দ্বিতীয় বলে ছক্কা হাঁকান সোহান। দলীয় রান নিয়ে যান ১৯৫-এ। রাফিউল্লাহর করা শেষ ওভারের শেষ ২ বলকেও উড়িয়ে সীমানার বাইরে পাঠিয়ে ছাড়েন এ উইকেটকিপার।

দুর্দান্ত এমন ইনিংস খেলার পরও মাত্র এক রানের জন্য অর্ধশতাধিক বঞ্চিত হন সোহান। কারণ সেখানেই ওভার শেষ হয়ে যায়।

ভিডিওতে দেখুন সোহানের সেই ৫ ছক্কা দেখুন

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আফগানিস্তানের পরামর্শক অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার

জিম্বাবুয়ের সাবেক অধিনায়ক ও কোচ অ্যান্ডি ফ্লাওয়ারকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দলের পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে আফগানিস্তান। শনিবার এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানিয়েছেন আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (এসিবি) প্রধান আজিজুল্লাহ ফাজিল। বিশ্বকাপ খেলতে ৬ অক্টোবর সংযুক্ত আরব আমিরাতে গেছে আফগানিস্তান। বিশ্বকাপে সুপার টুয়েলভে গ্রুপ-২ তে খেলবে তারা।

২০০৯ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার ছিলেন ইংল্যান্ড দলের প্রধান কোচ। তার অধীনেই ২০১০ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতে ইংল্যান্ড। ফ্লাওয়ার খেলা ছাড়ার পর টি-টোয়েন্টি লিগ আইপিএল, সিপিএল, পিএসএলেও কোচিং করিয়েছেন।

এবার বিশ্বকাপে আফগানিস্তানের স্কোয়াড ঘোষণার পরই দল পছন্দ না হওয়ায় অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেন রশিদ খান। পরে অধিনায়ক করা হয় মোহাম্মদ নবিকে।

মেসি ফ্রিতে খেলবেন! আশায় ছিলেন বার্সা প্রেসিডেন্ট

করোনাকালে বড় ধরনের আর্থিক সংকটে পড়ে বার্সেলোনা। বার্সার সঙ্গে দীর্ঘ ২১ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে আর্জেন্টাইন ফরওয়ার্ড লিওনেল মেসিকে পাড়ি জমান ফরাসি ক্লাব প্যারিস সেন্ট জার্মেইতে (পিএসজি)।

পিএসজিতে এরইমধ্যে বেশ কয়েকটি ম্যাচও খেলে ফেলেছেন লিওনেল মেসি। এদিকে বার্সা প্রেসিডেন্ট হোয়ান লাপোর্তা স্বীকার করেছেন, বার্সা আশা করেছিল মেসি ক্লাবের দিকে তাকিয়ে বিনা বেতনে খেলতে রাজি হবেন।

মেসির বার্সা ছাড়া প্রসঙ্গে স্প্যানিশ গণমাধ্যম আরএসি-১-কে লাপোর্তা বলেন, ‘মেসির সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত কোনো ঝামেলা নেই। সে শুধু আমার কাছেই নয়, বিশ্বব্যাপী প্রশংসনীয় একজন মানুষ। আমিও জানি তার এখানে থাকার অনেক ইচ্ছা ছিল। তবে পিএসজির শক্তিশালী প্রস্তাবের কাছে সে না করতে পারেনি। আর সেটা অবশ্যই ভালো প্রস্তাব ছিল তার জন্য।’

মেসির সঙ্গে কথা বলে লাপোর্তো বোঝেন তাকে আর ফেরানো সম্ভব না। এ নিয়ে বার্সা প্রেসিডেন্ট জানান, ‘আমি সবসময় ক্লাবের বিষয়ে চিন্তা করেছি। তবে আমি আশা করেছিলাম মেসি হয়তো শেষ মিনিটে বলবে ফ্রিতে খেলতে চায় সে। আমি অপেক্ষায় ছিলাম, খুশিও হতাম এমনটা হলে। আমার মনে হয় লিগ কর্তৃপক্ষও অমান্য করত না।

আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কারে মনোনীত প্রিয়াংকা

আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কার-২০২১ এর জন্য মনোনীত হয়েছে সিরাজগঞ্জের মেয়ে প্রিয়াংকা ভদ্র। তাকে এ পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন দিয়ে নেদারল্যান্ড সরকারের পিস রাইটস কমিটির কাছে সুপারিশ পাঠানো হয়েছে। শিশুদের জন্য এটি নোবেল পুরস্কার নামেও পরিচিত।

শুক্রবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন প্রিয়াংকার বড় ভাই দীপংকর ভদ্র দীপ্ত। তিনি বলেন, সকালে কিডস রাইটস ফাউন্ডেশনের ওয়েব সাইট থেকে এ ব্যাপারে জানতে পেরেছি। প্রিয়াংকা ‘লিঙ্গ বৈষম্য’ বিষয়ে পুরস্কারটির জন্য আবেদন করেছিল।

সিরাজগঞ্জ শহরের দরগা রোড মহল্লার দীপক কুমার ভদ্রের মেয়ে প্রিয়াংকা। বর্তমানে সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী।

২০১৬ সাল থেকে বাংলাদেশ ন্যাশনাল চাইল্ড পার্লামেন্টের (বিএনসিপি) সঙ্গে যুক্ত প্রিয়াংকা। এছাড়াও সে সিরাজগঞ্জ প্রদেশের ডেপুটি স্পিকার। ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে যুক্ত রয়েছে ন্যাশনাল চাইল্ড টাস্কফোর্সের (এনসিটিএফ) সঙ্গে।

প্রিয়াংকা একজন শিশু সাংবাদিকও। ২০১৭ সাল থেকে কিশোর গোয়েন্দা ম্যাগাজিন ও ২০১৮ সাল থেকে হ্যালো বিডিনিউজ২৪ ও শিশু বার্তার সঙ্গে যুক্ত সে। বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন ও পরিবেশ রক্ষায়ও সোচ্চার প্রিয়াংকা।

২০২০ সালে আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কার পেয়েছিল বাংলাদেশি কিশোর সাদাত রহমান। যা এর আগে পেয়েছিল পাকিস্তানের নোবেল বিজয়ী মালালা ইউসুফজাই।

বিডি প্রতিদিন

টেকনাফে রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ আটক ৫

কক্সবাজারের টেকনাফে জাদিমুড়া ২৭ নম্বর ক্যাম্প এলাকা থেকে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ পাঁচ রোহিঙ্গা ডাকাতকে আটক করেছে এপিবিএন পুলিশ সদস্যরা।

শুক্রবার বিকালে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুড়া ২৭ ক্যাম্প এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, হ্নীলা ইউনিয়নের শালবাগান ক্যাপের ব্লক-সি/৬,এফসিএন ২৬২৭২৮ বাসিন্দা মোঃ খলিলের ছেলে সৈয়দ নুর(২৮), একই ক্যাম্পের এফসিএন ৪০২০১৯ বাসিন্দা মৃত বদি আলমের ছেলে জাহাঙ্গীর(২২), চাকমারকুল ২১ ক্যাম্পের ব্লক সি/১, ঘর ১৬ বাসিন্দা মৃত নুর আহাম্মদের ছেলে আবু বকর সিদ্দিক (৩২), নয়াপাড়া রেজিস্টার ক্যাম্পের ব্লক-জি/১, এফসিএন ২৫৯২৮৩ বাসিন্দা মোঃ জাকরিয়ার ছেলে মোঃ সাকের(২৭), একই ক্যাম্পের এফসিএন ১৮৮৮০৪ বাসিন্দা দিল মোহাম্মদের ছেলে আবু তালেব(৩০)।

এপিবিএন পুলিশের দাবি আটককৃত রোহিঙ্গারা ডাকাত। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ১৬ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) এর অধিনায়ক মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম তারিক।

তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হ্নীলা জাদিমুড়া ক্যাম্পের দায়িত্বরত এপিবিএন পুলিশের একটিদল ক্যাম্পে অভিযান পরিচালনা করে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ পাঁচ রোহিঙ্গা ডাকাতকে আটক করতে সক্ষম হয়। পরে জিজ্ঞেসাবাদে জানা যায়, তারা ডাকাতি করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এসময় তারা আরও ১২ জন সহযোগী ডাকাতের নাম ঠিকানা জানায়। ধৃতদের কাছ থেকে দেশীয় তৈরি বিভিন্ন সাইজের ছয়টি রামদা ও কিরিচ উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান, আটককৃত ৫ জনসহ ১৭ রোহিঙ্গার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা রুজু করে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন