এবার মহেশ ভাটকে নিয়ে যে অভিযোগ তুললেন ভাতিজার স্ত্রী

অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই তোপের মুখে রয়েছেন বলিউডের আইকনিক নির্মাতা মহেশ ভাট। ‘কাই পো চে’ অভিনেতার প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে এই নির্মাতার ঘনিষ্ঠতা নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন। পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাকে নিয়ে নানা বিদ্রূপ হচ্ছে।

এবার মহেশ ভাটকে বলিউডের সবচেয়ে বড় ডন আখ্যা দিলেন অভিনেত্রী লুভিয়েনা লোধ। তিনি সম্পর্কে মহেশ ভাটের ভাতিজা সুমিত সাভারওয়ালের স্ত্রী।
ফটো ও ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন লুভিয়েনা। তিনি বলেন, “মহেশ ভাটের ভাতিজা সুমিত সাভারওয়ালের সঙ্গে আমার বিয়ে হয়েছে। তবে ডিভোর্সের জন্য আবেদন করেছি। কারণ আমি জানতে পেরেছি তিনি স্বপ্না পাব্বি ও আমায়রা দাস্তুরের মতো অভিনেত্রীদের মাদক সরবরাহ করেন। আর বিষয়টি মহেশ ভাটে জানেন।”

মহেশ ভাটকে বলিউডের ডন আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, “মহেশ ভাট ইন্ডাস্ট্রির সবচেয়ে বড় ডন। তার ইশারায় পুরো সিস্টেম চলে। যদি কেউ তার নিয়ম অনুযায়ী না চলে তাহলে তার জীবন দুর্বিষহ করে দেন। কাজ কেড়ে নিয়ে মহেশ ভাট অনেকের জীবন ধ্বংস করে দিয়েছেন। তার এক ফোন কলেই মানুষ কাজ হারায়। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার পর তিনি আমার বাড়ি থেকে আমাকে বের করার চেষ্টা করছেন। কেউ আমার অভিযোগ নিতে চায়নি। অনেক কষ্টের পর অভিযোগ দায়ের করতে পারলেও এ বিষয়ে এখনো কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।”

এই অভিনেত্রী জানান, তার ও পরিবারের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত তিনি। লুভিয়েনা বলেন, “আমার অথবা পরিবারের কিছু হলে মহেশ ভাট, মুকেশ ভাট, সুমিত সাভারওয়াল, সাহিল সেহগাল ও কুমকুম সেহগাল দায়ী থাকবেন। সবার জানা উচিৎ আড়ালে এই মানুষগুলো কী করেন। কারণ মহেশ ভাট খুবই প্রভাবশালী।”

‘কাজরারে’ সিনেমার মাধ্যমে ২০১০ সালে বলিউডে পা রাখেন লুভিয়েনা। সিনেমাটিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেন হিমেশ রেশমিয়া। এটি পরিচালনা করেছেন মহেশ ভাটের মেয়ে পূজা ভাট। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস, নিউজ১৮

মৃত্যুর পর নিজের সব সৃষ্টিকর্ম ধ্বংস করতে বললেন কবীর সুমন

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে নিজের ইচ্ছাপত্র (উইল) পোস্ট করেছেন কবীর সুমন। গীতিকার, সুরকার, গায়ক এবং সাবেক সাংসদ সুমন শুক্রবার তার ফেসবুক ওয়ালে নিজের প্যাডে লেখা ইচ্ছাপত্রটি আপলোড করেন। যেখানে তিনি বলেছেন, তার মৃত্যুর পর তার সমস্ত সৃষ্টি যেন ট্রাকে করে নিয়ে গিয়ে ধ্বংস করে কলকাতা পৌরসভা।

‘সকলের অবগতির জন্য’ শিরোনামে নিজের হাতে লেখা ইচ্ছাপত্রে সুমন আরও লিখেছেন, ‘আমার মৃতদেহ যেন দান করা হয় চিকিৎসাবিজ্ঞানের কাজে। কোনো স্মরণসভা, শোকসভা, প্রার্থনাসভা যেন না হয়। আমার সমস্ত পাণ্ডুলিপি, গান, রচনা, স্বরলিপি, রেকর্ডিং, হার্ড ডিস্ক, পেনড্রাইভ, লেখার খাতা, প্রিন্ট আউট যেন কলকাতা পৌরসভার গাড়ি ডেকে তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয় সেগুলো ধ্বংস করার জন্য। আমার কোনো কিছু যেন আমার মৃত্যুর পর পড়ে না থাকে। আমার ব্যবহার করা সব যন্ত্র, বাজনা, সরঞ্জাম যেন ধ্বংস করা হয়। এর অন্যথা হবে আমার অপমান।’
তিনি জানান, ‘সজ্ঞানে, সচেতন অবস্থায়, স্বাধীন ভাবনাচিন্তা ও সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে আমি জানাচ্ছি, আমার কোনো অসুখ করলে, আমায় হাসপাতালে ভর্তি হতে হলে অথবা আমি মারা গেলে, আমার সম্পর্কিত সব কিছুর প্রতিটি বিষয় ও ক্ষেত্রে দায়িত্বগ্রহণ এবং সিদ্ধান্তগ্রহণের অধিকার থাকবে একমাত্র মৃন্ময়ী তোকদারের (মায়ের নাম প্রয়াত প্রতিমা তোকদার, বাবার নাম দেবব্রত তোকদার)। অন্য কারো কোনো অধিকার থাকবে না এই সব বিষয় ও ক্ষেত্রে।’

সুমনের পোস্টের নীচে মৃন্ময়ী লিখেছেন, তিনি সুমনের দেওয়া ওই দায়িত্ব স্বীকার করে নিচ্ছেন।

ইচ্ছাপত্রে ‘নাগরিক কবিয়াল’ আরও লিখেছেন, ‘খুব জরুরি বিষয়। আবেগহীনভাবে সকলকে জানিয়ে রাখছি, কারণ হঠাৎ কিছু ঘটে গেলে কঠিন সমস্যা দেখা দেয়। প্রায় অনুরূপ একটা সমস্যা দেখা দিয়েছিল ২০১২ সালে আমি নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর। খোলাখুলি সকলকে জানিয়ে রাখছি। অনুগ্রহ করে মতামত দেবেন না। ভালোমন্দ কিছু লিখবেন না। এটা এক প্রবীণ মানুষের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিজ্ঞপ্তি। অনেক অভিজ্ঞতার পর, অনেক ভেবেচিন্তে লিখছি। ফেসবুকে যাতে অনেকেই এটা জেনে যান। অনুগ্রহ করে আবেগের বশবর্তী হবেন না, উপদেশ পরামর্শ দেবেন না।’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘আমার জীবনে কোনো হতাশা, দুঃখ, ব্যর্থতাবোধ, অবসাদ নেই। আমি সানন্দে বেঁচে আছি। আমার কাজ করে যাচ্ছি।’

সূত্র : আনন্দবাজার

করোনায় আক্রান্ত ‘সারেগামাপা’র ৪ বিচারক

করোনা ভাইরাস। ভয়ানক এক ভাইরাস। মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়ছে মানুষ থেকে মানুষে। এবার এই ভাইরাসে আক্রান্ত ভারতের রিয়েলিটি শো ‘সারেগামাপা’র বিচারকরা। এক সঙ্গে সকলেই আক্রান্ত হয়েছেন করোনাতে।

এই শোয়ের বিচারক শ্রীকান্ত আচার্য ও মনোময় ভট্টাচার্যের করোনা ভাইরাস আগেই ধরা পড়ে। এরপর করোনা পজেটিভ রিপোর্ট আসে আকৃতি কক্কর ও মিকা সিংয়ের। একমাত্র সঞ্চালক আবির চ্যাটার্জি, জয় সরকার, রাঘব চট্টোপাধ্যায় এবং ইমন চক্রবর্তীর পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছে। তবে তারা প্রত্যেকেই এখন হোম আইসোলেশনে রয়েছেন।
কয়েকদিন আগেই শুরু হয়েছে এবারের ‘সারেগামাপা’। ভারতীয় বাংলা টেলিভিশনের সবচেয়ে জনপ্রিয় রিয়েলিটি শোগুলির মধ্যে একটি এই ‘সারেগামাপা’। তবে শো চালিয়ে যাওয়া নিয়ে চিন্তায় পড়েছে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ।

প্রথমে শ্রীকান্ত আচার্যের হালকা উপসর্গ দেখা গিয়েছিল। তারপরই তিনি পরীক্ষা করান এবং তার করোনা পজিটিভ আসে। এরপর মনোময় ভট্টাচার্যের করোনার উপসর্গ দেখা যায়। শ্রীকান্ত আচার্য ও মনোময় ভট্টাচার্য দু’জনেই হোম আইসোলেশনে রয়েছেন। মিকা ও আকৃতিকেও হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

এই পরিস্থিতির জেরে কীভাবে এবার নভেম্বরের শ্যুটিং হবে তা নিয়ে চিন্তায় চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। কয়েকদিন আগেই শুরু হয়েছে এবারের নতুন সিজন। এই শোয়ের বাকি প্রতিযোগীদেরও করোনা আছে কিনা তা পরীক্ষা করা হচ্ছে। যারা যারা এই বিচারকদের সংস্পর্শে এসেছেন সকলেরই টেস্ট করা হচ্ছে।

তবে এভাবে একের পর সব কজন বিচারক একসঙ্গে আক্রান্ত হওয়ায় কিভাবে চলবে এই শো? চিন্তায় সকলে। আনলক পর্ব হালকা হতেই অনুমতি দেওয়া হয়েছিল টলিপাড়ায় সব শ্যুটিং শুরু করার। সেই মতোই শুরু হয়েছিল এই শো। তবে সবরকম সতর্কতা মেনেও আটকানো যাচ্ছে না করোনা।

বিডি-প্রতিদিন

যদি মেয়ে নাইসাকে নিয়ে শাহরুখ-পুত্র পালিয়ে যায়, কী করবেন কাজল?

বলিউড ইতিহাসের অন্যতম রোম্যান্টিক জুটি শাহরুখ-কাজল। রুপালি পর্দায় তাদের রসায়ন আজও তাক লাগিয়ে দেয়। বাজিগর থেকে দিলওয়ালে- হিন্দি ছবির সুপারহিট জুটি এসআরকে ও কাজল। তবে বাস্তব জীবনে তাদের সম্পর্কটা খুনসুটিতে ভরপুর। বেশ কয়েক বছর আগে কফি উইথ করণের সেটে একসঙ্গে হাজির হয়েছিলেন শাহরুখ-কাজল, সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন রানি মুখার্জিও।

ব়্যাপিড ফায়ার রাউন্ডে করণ কাজলের সামনে প্রশ্ন রাখেন- ‘যদি ১০ বছর পর নাইসাকে নিয়ে আরিয়ান পালিয়ে যায় তাহলে কাজলের কী প্রতিক্রিয়া হবে’? প্রশ্ন শুনেই হাসিতে ফেটে পড়েছিলেন কাজল। কিছুটা দম নিয়ে কাজল উত্তর দেন- ‘আমি বলব দিলওয়ালে দুলহা লেগায়া’। এই কথা বলে শাহরুখের সঙ্গে হাত মেলাতে যান কাজল, তবে গোটা বিষয়টা নিয়ে স্তম্ভিত ছিলেন কিং খান।
করণ পালটা বলেন- ‘শাহরুখ বোধহয় উত্তরটা খুব বেশি ভালো মনে করল না’। শাহরুখ এরপর জানান ‘হ্যাঁ, এই জোকটা আমি একদম বুঝতে পারিনি কারণ কাজল আমার আত্মীয় হবে এটাই সবচেয়ে বেশি আতঙ্কের, এই দুঃস্বপ্নটা ভাবতেও চাই না’।

কাজলের এই উত্তর ছিল শাহরুখ-কাজল জুটির আইকনিক ফিল্ম দিলওয়ালে দুলহানিয়া লেজাঙ্গের প্রেক্ষাপটে, যে ছবি মুক্তির ২৫ বছর পূর্ণ হলো গতকাল। আর এই বিশেষ মুহূর্তেই ভাইরাল হয়েছে কফি উইথ করণের এই পুরোনো ভিডিও। আদতে ২০০৭ সালের কফি উইথ করণের ভিডিও ক্লিপ এটি। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস।

যদি মেয়ে নাইসাকে নিয়ে শাহরুখ-পুত্র পালিয়ে যায়, কী করবেন কাজল?

বলিউড ইতিহাসের অন্যতম রোম্যান্টিক জুটি শাহরুখ-কাজল। রুপালি পর্দায় তাদের রসায়ন আজও তাক লাগিয়ে দেয়। বাজিগর থেকে দিলওয়ালে- হিন্দি ছবির সুপারহিট জুটি এসআরকে ও কাজল। তবে বাস্তব জীবনে তাদের সম্পর্কটা খুনসুটিতে ভরপুর। বেশ কয়েক বছর আগে কফি উইথ করণের সেটে একসঙ্গে হাজির হয়েছিলেন শাহরুখ-কাজল, সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন রানি মুখার্জিও।

ব়্যাপিড ফায়ার রাউন্ডে করণ কাজলের সামনে প্রশ্ন রাখেন- ‘যদি ১০ বছর পর নাইসাকে নিয়ে আরিয়ান পালিয়ে যায় তাহলে কাজলের কী প্রতিক্রিয়া হবে’? প্রশ্ন শুনেই হাসিতে ফেটে পড়েছিলেন কাজল। কিছুটা দম নিয়ে কাজল উত্তর দেন- ‘আমি বলব দিলওয়ালে দুলহা লেগায়া’। এই কথা বলে শাহরুখের সঙ্গে হাত মেলাতে যান কাজল, তবে গোটা বিষয়টা নিয়ে স্তম্ভিত ছিলেন কিং খান।
করণ পালটা বলেন- ‘শাহরুখ বোধহয় উত্তরটা খুব বেশি ভালো মনে করল না’। শাহরুখ এরপর জানান ‘হ্যাঁ, এই জোকটা আমি একদম বুঝতে পারিনি কারণ কাজল আমার আত্মীয় হবে এটাই সবচেয়ে বেশি আতঙ্কের, এই দুঃস্বপ্নটা ভাবতেও চাই না’।

কাজলের এই উত্তর ছিল শাহরুখ-কাজল জুটির আইকনিক ফিল্ম দিলওয়ালে দুলহানিয়া লেজাঙ্গের প্রেক্ষাপটে, যে ছবি মুক্তির ২৫ বছর পূর্ণ হলো গতকাল। আর এই বিশেষ মুহূর্তেই ভাইরাল হয়েছে কফি উইথ করণের এই পুরোনো ভিডিও। আদতে ২০০৭ সালের কফি উইথ করণের ভিডিও ক্লিপ এটি। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস।

ভিড়ের মধ্যে পেছন থেকে শরীরে হাত, অতঃপর বখাটেকে যে ‘উচিত শিক্ষা’ দেন তাপসী!

তাপসী পান্নু, ভারতের দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী। বলিউডের সিনেমাতেও দর্শকপ্রিয় তিনি। বিভিন্ন সিনেমায় সাহসী ভূমিকায় অভিনেতা করতে দেখা গেছে এই অভিনেত্রীকে। এবার আর সিনেমা নয়, বাস্তবেই দুর্দান্ত সাহসের নজির দেখালেন তাপসী।

তার সঙ্গে অসদাচরণ করায় এক ব্যক্তির আঙুল মটকে দিয়েছেন বলিউডের এই অভিনেত্রী । তাপসী এই ঘটনা জানিয়েছেন কারিনা কাপুর খানের রেডিও টক শো ‘হোয়াট উইমেন ওয়ান্ট’-এ।
তাপসী বলেন, ‘গুরুপরবের সময় আমরা গুরুদ্বারে যেতাম। তার ঠিক পাশের একটি খাবার স্টল ছিল যেখানে বাইরে থেকে আসা দর্শনার্থীদের খাবার দেওয়া হতো। জায়গাটিতে এতটাই ভিড় থাকত যে সব সময় ধাক্কাধাক্কি হতো। এর আগেও সেখানে আমার অদ্ভুত কয়েকটি অভিজ্ঞতা হয়েছিল। আমি জানতাম এ রকম ভিড়ে গেলে আবারও খারাপ কিছু একটা হতে পারে। সেভাবেই নিজেকে মানসিকভাবে প্রস্তুত রেখেছিলাম। আচমকা এক ব্যক্তি আমাকে পেছন দিক থেকে খারাপভাবে স্পর্শ করার চেষ্টা করে। আমি বুঝলাম আবার এক-ই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটছে। তৎক্ষণাৎ আমি ওই ব্যক্তির আঙুল ধরে তা মচকে দিই এবং খুব দ্রুত সেই জায়গা ছেড়ে বেরিয়ে আসি।’

পর্দায় তিনি বরাবরের সাহসিনী। লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনের বাইরেও সেই একই রকম সাহসী তাপসী। অন্যায়ের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছেন। সাম্প্রতিককালে রিয়া চক্রবর্তীর সমর্থনে মুখ খোলায় অনেক বিরূপ মন্তব্য উঠেছে তার দিকে। কোনো কিছুকে তোয়াক্কা না করেই রিয়ার পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি। একইভাবে অভিনেত্রী পায়েল ঘোষ পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানি ও ধর্ষণের অভিযোগ আনার পর বন্ধু অনুরাগের পাশে ছিলেন তিনি। বন্ধুর কঠিন সময়ে তার সঙ্গে ছবি শেয়ার করে জানিয়েছিলেন অনুরাগই তার দেখা সব চেয়ে বড় একজন নারীবাদী মানুষ।

‘পাঠান’ ছবির কাজ শুরু করছেন শাহরুখ

দীর্ঘ সময় ধরে বড় পর্দা থেকে দূরে ছিলেন কিং খান শাহরুখ। ২০১৮ সালে ‘জিরো’ বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ার পর বহু চিত্রনাট্য টেবিলে জমা হলেও কোনো ছবির কাজ হাতে নেননি। এবার কিং খান ভক্তদের অপেক্ষার পালা শেষ হতে চলেছে। নতুন ছবির কাজ হাতে নিয়েছেন শাহরুখ। আর এতে বেশ স্টাইলিশ লুকে দেখা যাবে তাকে।

মিড ডে জানিয়েছে, আগামী নভেম্বর মাসের শেষ দিকে শাহরুখ যশ রাজ স্টুডিওতে ‘পাঠান’ ছবির কাজ শুরু করবেন। প্রথম দুই মাসের স্লটে শাহরুখের দৃশ্যগুলোই ধারণ করা হবে। সিদ্ধার্থ আনন্দের এ ছবিতে শাহরুখের সহশিল্পী দীপিকা পাড়ুকোন ও জন আব্রাহাম। তারা ছবির সঙ্গে যুক্ত হবেন আগামী জানুয়ারিতে।
‘পাঠান’ ছবির মাধ্যমে প্রথমবারের মতো বড় পর্দায় একসঙ্গে দেখা যাবে শাহরুখ ও জনকে। ছবিতে দুইজনের বেশ কিছু অ্যাকশন দৃশ্য থাকবে। ‘পাঠান’ ছবিতে অ্যাকশন ডিরেক্টর হিসেবে থাকছেন পারভেজ শেখ। এর আগে ‘ওয়্যার’, ‘বেল বটম’ ও ‘বক্ষ্মাস্ত্র’ ছবিতে কাজ করেছেন এ অ্যাকশন ডিরেক্টর।

বিডি প্রতিদিন

শ্যুটিংয়ে আবারও আঘাত পেলেন আমির খান

লাল সিং চাড্ডার শ্যুটিংয়ে আবারও আহত হয়েছেন আমির খান। সেটে উপস্থিত এক সূত্রের খবর অনুযায়ী ছবির কিছু অ্যাকশন সিক্যুয়েন্স শ্যুট করতে গিয়ে পাঁজরে চোট পান তিনি। কিন্তু এ আঘাত তাকে কাজ করা থেকে আটকে রাখতে পারেনি মোটেই। অবস্থা ঠিক কতটা গুরুতর তা বিচার করে পরমুহূর্তেই পেন কিলার ওষুধ খেয়ে কাজ শুরু করে দেন আমির খান।

করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে যেহেতু সেটে বাড়তি আয়োজন করতে হচ্ছে, তাই মিস্টার পারফেকশনিস্ট চাননি তার জন্য শ্যুটিংয়ের কোনো ক্ষতি হোক। তাই পাঁজরের যন্ত্রণাকে নজর আন্দাজ করে চালিয়ে গেছেন কাজ। তবে এই প্রথমবার নয়। শ্যুটিং করতে গিয়ে আগেও একবার অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন আমির খান। লাগাতার দৌড়ানোর একটি দৃশ্য শ্যুট করতে গিয়ে ক্লান্তির কারণে অসুস্থ হয়ে পড়েন আমির।
আমির খান এবং কারিনা কাপুর খানের অভিনীত ছবি লাল সিং চাড্ডার মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল চলতি বছরের বড়দিনে। কিন্তু অদ্বৈত চন্দন পরিচালিত এই ছবি এক বছর পিছিয়ে মুক্তি পাবে ২০২১ সালের বড়দিনে।

সূত্র: এই সময়

চিকিৎসকের সেই ভাইরাল নাচ শিখতে চান হৃতিক

গত ৮ মাস ধরে করোনা রোগীদের সুস্থ করতে দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। এরই মধ্যে আবার রোগীদের মনোরঞ্জনের চেষ্টাও করছেন অনেকে। কোভিড ওয়ার্ডে চিকিৎসকদের গান গাওয়ার ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। এবার করোনায় আক্রান্ত রোগীদের বিনোদনের জন্য পিপিই পরে নাচা আসামের এক চিকিৎসকের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

ভিডিওতে ওই চিকিৎসককে দেখা যাচ্ছে, জনপ্রিয় ‘ঘুঙরু’ গানের সঙ্গে নাচতে। ২০১৯ সালে মুক্তি পাওয়া ‘ওয়ার’ ছবিতে এই গানের সঙ্গে হৃতিক রোশন ও বাণী কাপুরের নাচ খুব জনপ্রিয় হয়েছিল।  পিপিই পরে নাচে ওই চিকিৎসকও তাদের থেকে কম যাননি।

‘ঘুঙরু’ গানে নাচা ওই চিকিৎসকের নাম অরূপ সেনাপতি। তিনি আসামের শিলচর মেডিকেল কলেজের চিকিৎসক। অরূপের ওই নাচ দেখেছেন এসেছে হৃতিকও। তিনি অরূপের নাচের প্রশংসা করে টুইটারে লিখেছেন, ‘‘অরূপের এই নাচের স্টেপ আমি শিখব। একদিন ওর মতোই ভালো নাচব।’

রণবীরকে বিয়ে করতে চান সারা, সরাসরি জানালেন বাবাকে!

বলিউডে প্রায়ই আলোচনায় থাকেন সাইফকন্যা সারা আলী খান। সুশান্তের ‍মৃত্যুতে যখন বলিউডে তুলকালাম কাণ্ড, তখনই আবার নিজের গোপন কথা প্রকাশ করে আলোচনায় এলেন তিনি। বলিউডে পা রেখেই সারার প্রেম নিয়ে কম কথা হয়নি। এবার সরাসরি বাবা সাইফ আলী খানকে বলিউডের ড্যাশিং হিরো রণবীর কাপুরকে বিয়ের কথা বলে হইচই ফেলে দিয়েছেন সারা।

জি-নিউজ জানায়, বাবা সাইফ আলী খানের সামনে প্রকাশ্যেই নিজের মনের ইচ্ছার কথা প্রকাশ করেন সারা আলী খান। এ শুনে বেশ অবাকই হয়ে যান সাইফ। যদিও মেয়ের মনের ইচ্ছা জানার পর সরাসরি কোনও মন্তব্য করেননি সাইফ।
এর আগে, ২০১৮ সালে কফি উইথ করণ-এ বাবাকে নিয়ে হাজির হন সারা । সেখানে করণ সারাকে জিজ্ঞেস করেন, কাকে বিয়ে করতে চান? এর উত্তরে রণবীর কাপুরের নাম নেন সাইফকন্যা। তিনি জানান, রণবীর কাপুরকে বিয়ে করতে চান তিনি। আর কার্তিক আরিয়ানের সঙ্গে চান ডেট করতে।

তবে রণবীরকে সরাসরি বিয়ে করে সংসারের ইচ্ছে প্রকাশ করেন সারা। যদিও পুরোটাই ছিল জোকস। প্রসঙ্গত, সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর কার্তিক আরিয়ানের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান সারা। পরে তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায় বলে শোনা যায়। লাভ আজকাল-এর সিক্যুয়েলের শুটিংয়ের সময় কার্তিকের সঙ্গে সারার সম্পর্ক ছিল।